• শিরোনাম

    হয়তো ফিরতে পারবো না জেনেও ছুটে এসেছি

    | ২৩ জুন ২০২০ | ৩:৫৭ অপরাহ্ণ

    হয়তো ফিরতে পারবো না জেনেও ছুটে এসেছি

    bangladeshjonoprottasha.com

    যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে এসেই কোয়ারেন্টিনে ছিলেন ডা. ফেরদৌস খন্দকার। কোয়ারেন্টিন শেষ করেই তিনি প্রথমে একজন রোগীকে প্লাজমা প্রদান করেন। এরপরেই প্রথমবারের মতো সাক্ষাৎকার প্রদান করতে আসেন কালের কণ্ঠ কার্যালয়ে। সিনিয়র সাংবাদিক হায়দার আলীর উপস্থাপনায় কালের কণ্ঠের ফেসবুক পেইজের লাইভ অনুষ্ঠানে অংশ নেন ডা. ফেরদৌস খন্দকার। সেখানে নানা বিষয় নিয়ে কথা বলেন। এছাড়াও হায়দার আলীর একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।

    এক প্রশ্নের জবাবে ডা. ফেরদৌস খন্দকার বলেন, বিমানে যখন আসছিলাম তখন আমার দুই সন্তানের চেহারা চোখের সামনে ভেসে উঠেছিল। আমি জানি না আর তাদের কাছে ফিরতে পারবো কি না। আমার চোখে জল চলে আসে। পরে আমি নিজেকে প্রবোধ দেই- আমি তো আমার মায়ের কাছে যাচ্ছি, মায়ের পাশে দাঁড়াতে যাচ্ছি। পরে আমার মন শান্ত হয়।



    এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসা পদ্ধতি, বাংলাদেশের চলমান চিকিৎসা, সীমাবদ্ধতা, আলোচি খন্দকার মোশতাকের স্বজন প্রসঙ্গ নিয়ে বিশদ আলোচনা করেন ডা. ফেরদৌস খন্দকার। আমি আমার মায়ের সেবা করতে যাচ্ছি।

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১