• শিরোনাম

    “সিরাজউদ্দৌলা আমাদের প্রেরণার আলোকবর্তিকা”

    | ২৪ জুন ২০২০ | ৬:৪৬ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 363 বার

    “সিরাজউদ্দৌলা আমাদের প্রেরণার আলোকবর্তিকা”

    পলাশীর বিপর্যয় থেকে আমাদের যথাযথ শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত। নয়তো ইতিহাসের সেই নির্মম সত্য বাস্তবে পরিণত হবে মন্তব্য করে ভাষাসৈনিক কৃষিবিদ বদরুজ্জামান (অব)।

    তিনি বলেছেন, ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিয়ে আজ আমাদের নব্য মীরজাফর, ঘষেটি বেগম, জগৎশেঠ ও রায়দুর্লভদের চিহ্নিত করতে হবে। সিরাজউেদ্দৌলা দেশপ্রেমিক স্বাধীনতাকামীদের প্রেরণার বাতিঘর। তিনি আমাদের স্বাধীন অস্তিত্বের প্রতীক, জাতীয় বীর।
    আজ ২৩ জুন মঙ্গলবার ঐতিহাসিক পলাশী দিবস তথা বাংলা-বিহার-উড়িষ্যার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজউদ্দৌলার ২৬৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে প্রেসবিজ্ঞপ্তিে এ কথা বলেন।



    জনাব জামান বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে জীবন বিসর্জন দিতে হয়েছে। তিনি চাইলে ব্রিটিশ বণিকদের বাণিজ্য সুবিধা কিছুটা বাড়িয়ে বহু যুগ ধরে নবাবী করে যেতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা করেননি। দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য তার ভালোবাসা ছিল অগাধ ও অকৃত্রিম। তাই তিনি শত্রুদের চিরতরে নিশ্চিহ্ন করে স্বাধীনতাকে মজবুত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মীর জাফরদের বিশ্বাস ঘাতকতার কারণে তিনি তা পারেননি। স্বাধীনতা দেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ। একে রক্ষার জন্য আজ দেশের বৃহত্তর ঐক্যের বড় প্রয়োজন।
    প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ‘আমার ফাঁসি চাই’

    ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১