• শিরোনাম

    মৌলভীবাজার বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় এম নাসের রহমান বিএনপি নামক দু:স্বপ্ন শাসকগোষ্ঠীকে সারাক্ষণই তাড়া করে

    বিডি জনপ্রত্যাশাঃ | ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫:৪৪ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 441 বার

    মৌলভীবাজার বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় এম নাসের রহমান বিএনপি নামক দু:স্বপ্ন শাসকগোষ্ঠীকে সারাক্ষণই তাড়া করে

    বিডি জনপ্রত্যাশাঃ মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য এম নাসের রহমান বলেছেন আজকে সাড়েদশটা বছর কতগুলি ভুয়া এমপি জনগন দ্বারা নির্বাচিত নয় এসমস্ত লোকেরা এমপি হয়েছে। ২০০৮ সালে কারসাজির মাধ্যমে মৌলভীবাজারেও একজনকে এমপি ঘোষনা করা হয়। এর ৫ পাঁচবছর পরে বিনা ভোটের নির্বাচনেও তিনি নির্বাচিত হন। উনার স্ত্রীকেও বিনা ভোটের এমপি নির্বাচিত করা হয়। আর গত সাত মাস আগে একবারে দিবালোকে হরিলুট ভোট ডাকাতির নির্বাচনে একেকজন এমপি হয়েছেন। এই ভোট কারচুপি শুধু রাতের নয়,দিনেও হয়েছে,সন্ধ্যায় হয়েছে,রাতেও হয়েছে। তিনবেলা কারচুপি হয়েছে। আগে কারচুপি হতো শুনতাম একবেলা। আর এখন হয় সারা বেলা। এইবার ভোট চুরি হয়েছে ভোটের আগের দিন রাতে। এই চুরি ডাকাতির পর একেকজন এমপি হয়েছেন। ১ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে মৌলভীবাজার শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে দলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। প্রয়াত সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী সাইফুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র এম নাসের রহমান আরও বলেন,আওয়ামীলীগ অদূর ভবিষ্যতে যদি ক্ষমতায় না থাকে এই যে আজকে জিয়াউর রহমানের নাম ফলক যারা ভেঙ্গেছে এ ছেলেগুলি কোথায় থাকবে। শুধু এরা কেন বড় নেতাদেরও খুঁজে পাওয়া যাবে না। রাজনীতিতে সহমর্মিতা না থাকলে এক নায়কতন্ত্রের রাজনীতি করলে এ অবস্থা হয়। দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন,ছাত্রদল কর যুবদল কর রাজনীতির ইতিহাস পড়তে হবে। ৭২ সাল থেকে ৭৫ সালের ইতিহাসটা বেশী করে পড়বা। আর ৭৫ সাল থেকে ৮১ সালের ইতিহাস পড়তে হবে। তখন রাইট অর রঙ বুঝতে পারবে। নাসের রহমান বলেন,আসলে শাসক গোষ্টী সাড়ে দশবছর ক্ষমতায় থাকার পরেও সারাক্ষণ প্রতি রাতে তাদের বিএনপি নামক একটা দু:স্বপ্ন দেখে। বিএনপি নামক দু:স্বপ্ন তাদের তাড়া করে বেড়ায় সারাক্ষণ। জিয়াউর রহমানের আত্মা দেখলে আতঁকে উঠে তারা। এজন্য তাদের নেত্রী এখন আবোল তাবোল বলছেন। গুম রাজনীতিতে যদি কোন পুরষ্কার থেকে থাকে পৃথিবীতে। এটা তো বালক বালিকারও বলতে পারবে এই পুরুষ্কারটা কারা পাবে। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বিএনপি প্রতিষ্ঠা করে গেছেন। আজকে সাড়ে দশবছর বিএনপিকে অত্যাচার নিপীড়ন হাজার হাজার নেতাকমীকে জেলে ঢুকিয়ে গুম করে হত্যা করেও শেখ হাসিনার আওয়মীলীগের শান্তি নাই। এখনও তারা বিএনপির নাম শুনলে আতঁকে লাফিয়ে উঠে। কোন রাজনৈতিক কর্মকান্ড তো দূরে থাক আমাদের দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পর্যন্ত করতে দেয়া হচ্ছে না। এই ফ্যাসিষ্ট সরকারের শত জুলুম সহ্য করেও কিন্তু বিএনপি রাজপথে ঠিকে আছে। আজকের বিএনপি প্রতিষ্ঠায় মৌলভীবাজারেরও অবদান কম নয়। এই বিএনপি প্রতিষ্ঠার সময় যে দশজন ছিলেন সেই দশজনের একজন ছিলেন মরহুম এম সাইফুর রহমান। তিনি বলেন,রুদ্ধদার পরিস্থিতি থেকে দেশ জাতি শিগগরিই মুক্তি পাবে। আজকে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বন্দী আছেন। নেত্রীকে একটি আন্তর্জাতিক ষড়যন্তের মাধ্যমে কারাগারে বন্দি করে রাখা হয়েছে। এই আন্তর্জাতিক চক্রর বিরুদ্ধে দাঁড়ানো সময় আমাদের এখনও আসে নাই। ইনশাল্লাহ আগামী কয়েকমাসের মধ্যে নেত্রী মুক্তি পাবেন। আবারো বিএনপি উজ্জীবিত হবে। মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক পৌরমেয়র ফয়জুল করিম ময়ুনের সভাপতিত্বে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ভিপি মিজানুর রহমান মিজান ও সাংগঠনিক সম্পাদক বকশী মিছবাহ উর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি মৌলভী আব্দুল ওয়ালী সিদ্দিকী,আলহাজ এমএ মুকিত,মোয়াজ্জেম হোসেন মাতুক,আশিক মোশারফ,য়ুগ্ম সম্পাদক হেলু মিয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ মতিন বক্স,জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন উজ্জল,সাধারণ সম্পাদক এমএ মোহিত,জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি স্বাগত কিশোর দাশ চৌধুরী,সাধারণ সম্পাদক জিএম মোক্তাদির রাজু,জাসাসের সভাপতি মো.মারুফ আহমেদ,জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো.রুবেল মিয়া,সাধারণ সম্পাদক আকিদুর রহমান সোহান।এসময় বিএনপি,যুবদল,ছাত্রদল,স্বেচ্ছাসেবকদল,জাসাস,শ্রমিকদল,কৃষকদল,তাতী দল,মৎস্যজীবী দল সহ সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১