• শিরোনাম

    আমার ইচ্ছে হচ্ছে আজ এই প্রবাসীদের পা ছুঁয়ে সালাম করি, আমার মতো একজন ব্যারিস্টার এদের পায়ে ধরে সালাম করলেও কম।’ ব্যারিস্টার সুমন

    | ২৫ আগস্ট ২০১৯ | ১:৩৭ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে 440 বার

    আমার ইচ্ছে হচ্ছে আজ এই প্রবাসীদের পা ছুঁয়ে সালাম করি, আমার মতো একজন ব্যারিস্টার এদের পায়ে ধরে সালাম করলেও কম।’ ব্যারিস্টার সুমন

    ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ ক্যাপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগ নৌকা বিতরণ অনুষ্টানে লাইভে এসে ব্যারিস্টার সুমন আমার ইচ্ছে হচ্ছে আজ এই প্রবাসীদের পা ছুঁয়ে সালাম করি, আমার মতো একজন ব্যারিস্টার এদের পায়ে ধরে সালাম করলেও কম।’ নানা সময় ফেসবুকে লাইভে এসে বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে জনপ্রিয় হওয়া ব্যারিস্টার সুমন এবার গেছেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আখাইলখুড়া ইউনিয়নে। সেখানে ইংল্যান্ড প্রবাসীদের ক্যাপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ১০০টি নৌকা বিতরণ করা হয়। সে বিষয়েই প্রশংসা করে এবার কথা বলেছেন তিনি।

    ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘মাতৃভূমির প্রতি প্রবাসীদের প্রেম দেখার জন্য ২৫০ কিলোমিটার দূর থেকে এসেছি। যেসব প্রবাসীদের দেশের প্রতি খেয়াল নেই তারা ক্যাপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগ দেখতে পারেন।’ এই নৌকা বিতরণের উদ্দেশ্য হচ্ছে, খাদ্যদ্রব্য দিয়ে সাহায্য করলে তারা খেয়ে ফেলবে। কিন্তু নৌকা থাকার কারণে তারা নিজেরা যাতায়াতের পাশাপাশি আয়-রোজগার করতে পারবেন।



    ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আমার ইচ্ছে হচ্ছে আজ এই প্রবাসীদের পা ছুঁয়ে সালাম করি, আমার মতো একজন ব্যারিস্টার এদের পায়ে ধরে সালাম করলেও কম।’ তিনি প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে বলেন, অল্প কয়েকজন প্রবাসী যেভাবে উদ্যোগ নিয়ে একটা ইউনিয়নকে বদলে দিচ্ছেন বাকি সব প্রবাসী যদি এভাবে সামনে আসেন তাহলে সিলেট বিভাগ বদলে যাবে।

     প্রবাসী লন্ডনীদের এত বড় লংকা কান্ডও কি আপনার মধ্যে কি প্রেম জাগায় না- ৫০ টা নৌকা, ৫০ টি পরিবার।
    আর্তমানবতার সেবায় নিয়োজিত, প্রবাসীদের অর্থায়নে পরিচালিত দরিদ্র ও অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাওয়া সেবামূলক বেসরকারি সংস্থা (কমিউনিটি এগেইন্সট পভার্টি) ক্যাপ ফাউন্ডেশন হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে ৫০টি নৌকা বিতরণ করেছে।এছাড়াও জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় গরীব ও অসহায় পরিবারকে স্বচ্ছল করতে ৬টি পরিবারকে “ক্যাপ ভিলেজ কর্ণার শপ” প্রজেক্টের আওতায় ৬টি দোকান কোটা ও দোকানের পণ্যসামগ্রী বিতরন করেছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন।
    শনিবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আকাইলকুড়া ইউনিয়নের বানেশ্রী গ্রামে কাওয়াদিঘীর হাওরে বসবাসরত অন্তেহরী, কাদিপুর, জুমাপুর, কালাইপুরা এই চার টি গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের জীবিকা নির্বাহের জন্য “ফিশ ফর লাইফ” প্রজেক্টের আওতায় পঞ্চাশ জন দরিদ্র পরিবারকে ৫০টি নৌকা ও মাছ ধরার সামগ্রী বিতরন করেছে ।
    নৌকা বিতরনে সময় অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন, ক্যাপ ফাউন্ডেশনের (ইউ.কে) সি.ই.ও আব্দুল নূর হুমায়ুন, ক্যাপ ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টি এন্ড ট্রেজারার আলম রুফ, এমবাসেডর মালিক মিয়া, রুহুল তরফদার, প্রজেক্ট কো অরডিনেটর দিলওয়ার হোসেন, অফিস ম্যানেজম্যান্ট জুয়েল মিয়া,কামরুল ইসলাম,জুবায়ের আলী, সুমন আহমদ, জসিম উদ্দিন, শামীম আহমদ ও লিলু হাসান ।
    এসময় ক্যাপ ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টি এন্ড ট্রেজারার আলম রুফ বলেন অসহায় পরিবারকে স্বচ্ছল করতে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন, এসব মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে পাড়লে এটাই আমদের আনন্দ। এছাড়াও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের খাদ্য সামগ্রী ও গর্ভবর্তী মায়েদের চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য একটি এন্টিনেন্টাল ক্লিনিক পরিচালনা করছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন
    এদিকে কাওয়াদিঘী হাওরে বসবাসরত দরিদ্র পরিবারগুলো তাদের পরিবারের জীবিকা নির্বাহের জন্য এই নৌকা পেয়ে অনেক আনন্দিত।

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১